ভারত-বাংলাদেশ মৈত্রী মুক্তিযােদ্ধাসন্তান বৃত্তি প্রকল্প ২০২০-২১

২০২০-২১ অর্থবছরে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় হ’তে বন্ধুপ্রতিম দেশ ভারত সরকারের আর্থিক সহায়তায় “নতুন ভারত বাংলাদেশ মৈত্রী মুক্তিযােদ্ধা সন্তান স্কলারশিপ স্কিম” এর অধীনে উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে ১০০০ জন এবং আন্ডার গ্রাজুয়েট পর্যায়ে ১০০০ জন বাংলাদেশের অভ্যন্তরে অধ্যয়নরত মুক্তিযােদ্ধাদের সন্তান এবং নাতি-নাতনীদের জন্য ছাত্রবৃত্তি প্রদান করা হবে। এই ছাত্র বৃত্তি প্রদান কার্যক্রম মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় এবং ঢাকাস্থ ভারতীয় দূতাবাস এর মাধ্যমে যৌথভাবে বাস্তবায়িত হবে। স্নাতক পর্যায়ে অধ্যয়নরত ছাত্র ছাত্রীদের এককালীন ৫০০০০/(পঞ্চাশ হাজার) টাকা এবং উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে অধ্যয়নরত ছাত্র ছাত্রীদের এককালীন ২০০০০/- (বিশ হাজার) টাকা প্রদান করা হবে।


(১) স্নাতক পর্যায়ে অধ্যয়নরত আবেদনকারীকে ২০১৭-২০২০ সালের মধ্যে উচ্চ মাধ্যমিক/ সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে। ২০১৭ সালের পূর্বে HSC/ সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ছাত্রছাত্রীদের আবেদন করার প্রয়ােজন নেই।

(২) উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে অধ্যয়নরত আবেদনকারীকে ২০১৯-২০২০ সালের মধ্যে SSC /সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হতে হবে। ২০১৯ সালের পূর্বে SSC/ সমমান পরীক্ষায় উত্তীর্ণ ছাত্রছাত্রীদের আবেদন করার প্রয়ােজন নেই।

(৩) আবেদনকারীর নিজ নামে ব্যাংক একাউন্ট থাকতে হবে এবং Bank Routing Number উল্লেখপূর্বক Bank Statement দাখিল করতে হবে যা সংশ্লিষ্ট ব্যাংক কর্মকর্তা কর্তৃক স্বাক্ষরিত হতে হবে। ব্যাংকের বিস্তারিত বিবরণ না থাকলে আবেদন বাতিল বলে গণ্য হবে।

(৪) উচ্চ মাধ্যমিক ও স্নাতক পর্যায়ে যারা একবার বৃত্তি পেয়েছে তাদের আবেদন করার প্রয়ােজন নেই। তবে উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে বৃত্তি পাওয়ার পর ছাত্র ছাত্রী যদি স্নাতক পর্যায়ে অধ্যয়নরত থাকে তারা আবেদন করতে পারবে।

(৫) উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে অধ্যয়নরত ছাত্র-ছাত্রীদের SSC/ সমমান পরীক্ষায় GPA 3 বা তদূর্ধ্ব গ্রেড পেতে হবে এবং স্নাতক পর্যায়ে অধ্যয়নরত ছাত্র-ছাত্রীদের SSC/ সমমান এবং HSC/ সমমান পরীক্ষায় GPA 3 বা তদূর্ধ্ব গ্রেড পেতে হবে।

(৬) ছাত্র-ছাত্রীকে অবশ্যই মুক্তিযােদ্ধার সন্তান বা নাতি-নাতনি হতে হবে।

(৭) আবেদনপত্র ইংরেজিতে পূরণ করতে হবে। আবেদন ফরম ও প্রয়ােজনীয় নির্দেশাবলী মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট (www.molwa.gov.bd) থেকে সংগ্রহ করতে হবে।

(৮) ছাত্র/ছাত্রীর সম্প্রতি তােলা এককপি পাসপাের্ট সাইজের রঙ্গিন ছবি সংযুক্ত করতে হবে ।

(৯) ছাত্র-ছাত্রীর অভিভাবকের মাসিক পারিবারিক আয়ের সনদপত্র দাখিল করতে হবে, যা সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান /পৌরসভার মেয়র/সিটি কর্পোরেশনের কমিশনার (ইউএনও /প্রথম শ্রেনীর গেজেটেড কর্মকর্তা কর্তৃক স্বাক্ষরিত হতে হবে।

(১০) মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় কর্তৃক প্রদত্ত মুক্তিযােদ্ধা সংক্রান্ত প্রমাণক (মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ওয়েব সাইটে সংরক্ষিত) দাখিল করতে হবে।

(১১) SSC/সমমান এবং HSC/সমমান এর মার্কশিটের সত্যায়িত কপি দাখিল করতে হবে ।

(১২) ছাত্র ছাত্রীদের জাতীয় পরিচয়পত্র (NID) / জন্ম সনদ (Birth Certificate) এর সত্যায়িত ফটোকপি আবেদন পত্রের সংযুক্ত করতে হবে।

(13) আবেদনপত্র সচিব, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয় বরাবর ডাকযােগে অথবা সরাসরি জমা দেয়া যাবে। খামের উপরে “নতুন ভারত বাংলাদেশ হমৈত্রী মুক্তিযােদ্ধা সন্তান স্কলারশিপ স্কিম” লিখতে হবে।

(১৪) আবেদনপত্র ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০২০ তারিখ থেকে ১৫ অক্টোবর, ২০২০ তারিখের মধ্যে পৌঁছাতে হবে (বিকাল ৫:০০ ঘটিকার মধ্যে)।

(১৫) বিলম্বে প্রাপ্ত এবং অসম্পূর্ণ আবেদন সরাসরি বাতিল বলে গণ্য হবে।

(১৬) আবেদনপত্রে উল্লিখিত সংযুক্ত নির্দেশনাবলী যথাযথ পালন করতে হবে এবং সংযুক্ত নির্দেশনাবলী যথাযথ পালন না করা হলে আবেদন বাতিল বলে গণ্য হবে।

(১৭) মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অধীন মুক্তিযােদ্ধা কল্যাণ ট্রাস্টের আওতায় বৃত্তিপ্রাপ্তদের জন্য এ বৃত্তি প্রযােজ্য হবে না।

(১৮) জরুরি প্রয়ােজনে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব (প্রশিক্ষণ) এর সাথে টেলিফোন নম্বর- ০২-৯৫৫০৭১৭ এ যােগাযােগ করা যেতে পারে।


আবেদন ফরমঃ

form
.pdf
Download PDF • 1.37MB